TadantaChitra.Com | logo

১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৮শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কেরাণীগঞ্জে কথিত দুই সাংবাদিকের চাঁদাবাজি

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ০৫, ২০২১, ০৯:২২

কেরাণীগঞ্জে কথিত দুই সাংবাদিকের চাঁদাবাজি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঢাকার কেরানীগঞ্জে প্রদীপ কুমার বর্মণ ও বিলায়েত হোসেন নামক দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সাংবাদিক পরিচয় ব্যবহার করে চাঁদাবাজি, অর্থ আত্মসাৎ ও মাদক ব্যবসার পরিচালনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সম্প্রতি কেরানীগঞ্জ প্রেসক্লাব বরাবর সমির সাহা নামে এক ব্যাক্তি ওই দুই কথিত সাংবাদিকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।

 

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, তাদের নেই কোন একাডেমি সার্টিফিকেট। তবুও তারা সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কেরাণীগঞ্জসহ আশপাশের এলাকায় বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাঁদাবাজি করে আসছে। এদের ভেতর প্রদীপ কুমার বর্মণ পেশায় একজন যাদুশিল্পী। তিনি চাঁদাবাজী, দালালী ও দুর্নীতিসহ ইসকনের নেতা হিসেবে এলাকায় ব্যাপক আলোচনায় রয়েছে। বহু লোক-জনের নিকট থেকে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। কিন্তু কাউকেই সে চাকুরী দিতে পারেনি। অর্থ আত্মসাৎ থেকে বাঁচার জন্য রাতারাতি সাংবাদিক বনে যান। সাংবাদিকতার নাম ভাঙ্গিয়ে এখন এলাকায় আরোও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

 

সম্প্রতি কেরানীগঞ্জের বাস্তা ইউনিয়নের পোতাইল গ্রামে চামড়া প্রক্রিয়াজাত ট্যানারির মালিক নীল কুমার দাসকে নিউজ করার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় তারা। গত সপ্তাহে ইউপি নির্বাচনি নিউজ করার কথা বলে কেরানীগঞ্জের জিঞ্জিরার ৯নং ওয়ার্ডের হাজী নাসিরের নিকট থেকে বেশ কিছু টাকা নিয়েও নিউজ করেনি। ব্রাক্ষণ না হয়েও সে পূজা অর্চণা করতে গিয়ে কয়েক বার ধাওয়ার শিকার হয়েছে। এদিকে, জমি বিক্রির দালালীতে ঢাকার এক সাংবাদিককে ভূয়া জমির পর্চা দিয়ে ২ লক্ষ টাকা বায়না নিয়ে এখন টাকা ফেরত দিতে টাল বাহানা করছে। সে চরম স্বার্থপর ও মিথ্যাবাদী। বিলায়েত হোসেন একজন মানবাধিকার কর্মী হলেও চাঁদাবাজী, দালালী ও দুর্নীতি করে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

 

এছাড়াও যাত্রাবাড়ি একটি ঔষধ কারখানা থেকে নিউজ করার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। কেরানীগঞ্জের র‌্যাব ১০ এর এক কর্মরর্তার নিকট থেকে আত্মীয়ের নিউজ করে দেওয়ার কথা বলে ২০ হাজার টাকা নিয়েও কোন নিউজ করেনি। শ্রীনগরের তালিমাবাদ গ্রামের শামীম এর দেড় একর জমির নাম পর্তন করে দেওয়ার কথা বলে ১৫ হাজার টাকা নেয়। কিন্তু গত ১ বছর অতিবাহিত হলেও তার কাজ করে না দিয়ে টাল বাহানা করছে। এমনিভাবে উপজেলার সরকারি অফিসসহ বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে গিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে নিয়মিত চাঁদা আদায় করে আসছে তারা। ফ্ল্যাটবাসা ভাড়া করে দেহব্যবসার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগও রয়েছে। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ রাজাবাড়ি গ্রামের তানিয়ার স্বাক্ষর জাল করে স্টাম্পের এর মাধ্যমে চাঁদা দাবী করার পর তানিয়া ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এদের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী।

 

তাদের এহেন অপকর্মের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছেন স্থানীয় সাংবাদিক সমাজও। এছাড়াও অভিযুক্ত কথিত সাংবাদিক বিলায়েত হোসেন নিজেকে এখনো অবিবাহিত হিসেবে পরিচয় দিলেও বিভিন্ন নারীকে মোহরী পরিচয় দিয়ে আইনি সহায়তার কথা বলে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে বিভিন্ন সময়ে অন্তত ৮টি বিবাহ করেছে। সবকটি বিবাহ ছাড়া ছাড়িও হয়ে গেছে। অনেক নারীর কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন মোটা অঙ্কের অর্থ। তার এসব অন্যায় অপকর্ম থেকে বাঁচার জন্য তিনি নিজেকে ৪টি পত্রিকার সাংবাদিক বলেও দাবি করে থাকেন। কিন্তু বাস্তবে তার কোনো পত্রিকার কার্ড বা নিয়োগপত্র নেই। এবিষয়ে অভিযুক্ত প্রদীপ কুমার বর্মণ ও বিলায়েত হোসেনের সাথে মোবাইলে একাধিক বার যোগাযোগ করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

 

এ বিষয়ে ঢাকা জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও ইত্তেফাক পত্রিকার প্রতিনিধি এইচ এম আমিন বলেন, ‘ওই কথিত সংবাদ পত্রের নাম ধারী লোকাদের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে বহু অভিযোগ পেয়েছি। তারা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন পত্রিকার পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজী করে আসেছিলো। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনকে বলা হয়েছে।’


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যলয়

৪৭৩ ডিআইটি রোড তৃতীয় তলা, মালিবাগ রেইল গেট, ঢাকা-১২১৯

মোবাইলঃ ০১৬২২৬৪৯৬১২

মেইলঃ tadantachitra93@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

তদন্ত চিত্র কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েব সাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।