TadantaChitra.Com | logo

২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ১৬ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সরকারের বিধিনিষেধকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে শিল্পকলার নিয়োগ পরীক্ষা.!

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২৬, ২০২২, ১৪:৫১

সরকারের বিধিনিষেধকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে শিল্পকলার নিয়োগ পরীক্ষা.!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সরকারি বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে বিভিন্ন পদে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা নিচ্ছে শিল্পকলা একাডেমি। কালচারাল অফিসার, নৃত্যশিল্পী, কণ্ঠশিল্পী ও অন্যান্য পদে প্রায় আড়াইহাজার পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে এই নিয়োগ পরীক্ষায়। কাল ২৮ জানুয়ারি শুক্রবার সরকারি বদরুন্নেসা মহিলা কলেজে এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে শিল্পকলা একাডেমির সাথে সংশ্লিষ্ট একাধিক বিশ্বস্ত সূত্র। করোনা পরিস্থিতির অবনতির কারণে সরকার যেখানে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দুই সপ্তাহের জন্য দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সেখানে শিল্পকলা একাডেমির এই নিয়োগ পরীক্ষাটি সরকারি বিধিনিষেধকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শনের সামিল বলেই মনে করছেন শিল্প-সংস্কৃতি অঙ্গণের বিশিষ্টজনেরা।

সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে কলেজ বন্ধ রাখার পরও কেন শিল্পকলা একাডেমির নিয়োগ পরীক্ষা নিচ্ছেন এই প্রশ্নের উত্তরে বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের প্রিন্সিপাল বলেন, এই বিষয়ে আমি কিছুই বলতে পারবো না। শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃপক্ষই এই বিষয়ে ভালো বলতে পারবে। আমার কলেজটি সরকারি আর শিল্পকলা একাডেমিও সরকারি প্রতিষ্ঠান। অতএব, এ বিষয়ে তারাই ভালো বলতে পারবেন।

বিষয়টি নিয়ে একাডেমির সচিব আছাদুজ্জামানের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে আমার বলার কোন এখতিয়ার নেই। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব এই বিষয়ে ভালো বলতে পারবেন। জনপ্রশাসনের মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়িই এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলেও জানান সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ এই প্রতিষ্ঠানটির সচিব।

সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও নিয়োগ কমিটির সভাপতি মো. আবুল মনসুর বলেন, কৃষি মন্ত্রনালয়ের পরীক্ষা তো হচ্ছে। বিভিন্ন স্কুল-কলেজেও পরীক্ষা হচ্ছে। তাছাড়া বিধিনিষেধের প্রজ্ঞাপনে নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে কিংবা নিয়োগ পরীক্ষা নেওয়া যাবে না; এরকম তো কোন বিষয়ে উল্লেখ নেই। সুতরাং আমাদের পরীক্ষা নিতে তো কোন বাধা থাকার কথা নয়। অতএব ২৮ জানুয়ারিই নিয়োগ পরীক্ষা হবে।

তবে, মন্ত্রণালয়ের এমন সিদ্ধান্তে সমালোচনার ঝড় বইছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বলেন, জীবনের চেয়ে নিয়োগ পরীক্ষা বড় নয়। যেখানে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রাই থেমে গেছে সেখানে কাকে সন্তুষ্ট করার জন্য এই নিয়োগ পরীক্ষা। প্রাণঘাতি এই করোনা পরিস্থিতিতে এই নিয়োগ পরীক্ষা সাধারণ মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা।

শিল্পকলা একাডেমির সাথে সংশ্লিষ্ট একাধিক বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, মাত্র তিন/চার মাস পরেই অবসরে যাচ্ছেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও নিয়োগ কমিটির সভাপতি মো. আবুল মনসুর ও শিল্পকলা একাডেমির সচিব মো. আছাদুজ্জামান। অবসরে যাওয়ার আগে নিজস্ব লোকদের নিয়োগ দেওয়ার দূরভিসন্ধি থেকেই এই নিয়োগ পরীক্ষা পেছাননি। কারণ এই সময়ের মধ্যে নিয়োগ পরীক্ষা না নেওয়া হলে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবুল মনসুর ও শিল্পকলা একাডেমির সচিব আছাদুজ্জামান তাদের পছন্দের লোকদের নিয়োগ দিতে ব্যর্থ হবেন। এতে করে, তাদের আখের গোছানো হবে না বলেও মনে করেন একাডেমির সাথে সংশ্লিষ্ট একাধিক গোপন সূত্র।


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যলয়

আজাদ টাওয়ার ৪৭৬/সি-২, ডিআইটি রোড ৭ম তলা, মালিবাগ রেলগেইট, ঢাকা-১২১৯

মোবাইলঃ ০১৬২২৬৪৯৬১২

মেইলঃ tadantachitra93@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

Web Design & Developed By
A

তদন্ত চিত্র কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েব সাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।