TadantaChitra.Com | logo

১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

জাতীয় প্রেসক্লাব ঘিরে সরকারের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তায়নের অপচেষ্টা অনভিপ্রেত ও দু:খজনক- সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ

প্রকাশিত : জুন ০৭, ২০২২, ১২:৪৯

জাতীয় প্রেসক্লাব ঘিরে সরকারের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তায়নের অপচেষ্টা অনভিপ্রেত ও দু:খজনক- সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ

‘গণতন্ত্র স্কোয়ার’খ্যাত জাতীয় প্রেস ক্লাবকে ঘিরে সরকারের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে মহল বিশেষের হীন অপচেষ্টায় বিস্ময়, ক্ষোভ ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদকি ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)‘র নেতৃবৃন্দ।

আজ এক যুক্ত বিবৃতিতে বিএফইউজে‘র সভাপতি এম আবদুল্লাহ, মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন, ডিইউজে‘র সভাপতি কাদের গনি চৌধুুরী ও সধারাণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা গভীর পরিতাপের সঙ্গে লক্ষ্য করছি যে জাতীয় প্রেস ক্লাবের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য ধ্বংস করতে রাজনৈতিক দলের সভা-সেমিনারের জন্যে হল ভাড়া বন্ধের পাঁয়তারা করা হচ্ছে, যা অগণতান্ত্রিক, অগঠনতান্ত্রিক ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। জাতীয় প্রেস ক্লাবে সদস্যদের নিরাপত্তা, সভা-সমাবেশ আয়াজনের ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ আমরাও চাই। সেটা হতে হবে যুগ যুগ ধরে অনুসৃত ক্লাবের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য ও প্রথা সমুন্নত রেখেই।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, গত ৫ জুন রবিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের অডিটরিয়ামে জাতীয়তাবাদী ছাত্র দলের একটি আলোচনা সভা ছিল। ওই দিন দুপুরে বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওমর ফারুক তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে অভিযোগ করেন যে প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গনে ছাত্রদলের একটি মিছিল থেকে তাঁকে ধাক্কা দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)‘র সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন তাৎক্ষণিকভাবে ওমর ফারুক ও প্রত্যক্ষদর্শী প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক মাঈনুল আলমের সঙ্গে কথা বলেন।

মাঈনুল আলম জানান, অডিটরিয়ামের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসা একটি ঝটিকা মিছিল প্রেস ক্লাব আঙ্গিনায় প্রবেশের পর তাদের সামনে পড়ে যাওয়ায় ওমর ফারুকের গায়ে খানিকটা ধাক্কা লেগেছে। ওমর ফারুক ঘটনাটিকে ধাক্কা দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

বিএফইউজে নেতৃবৃন্দ ঘটনাটিকে অনাকাঙ্খিত হিসেবে বর্ণনা করে সহানুভূতি প্রকাশ করেন। পরে বিএফইউজে‘র সভাপতি ও মহাসচিবের উপস্থিতিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্র দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবন ওমর ফারুকের সঙ্গে তাঁর অফিসে সাক্ষাৎ করেন। সেখানেই বিষয়টি আন্তরিক পরিবেশে নিষ্পত্তি হয়।

বিবৃতিতে বিএফইউজে ও ডিইউজে নেতৃবৃন্দ বলেন, অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হচ্ছে, উল্লেখিত বিচ্ছিন্ন ঘটনাকে হামলা হিসেবে উল্লেখ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসত্য প্রচারনা চালানো হয়েছে। আবার সংবাদমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়েছে। শুধু তাই নয় প্রেস ক্লাব আঙ্গিনায় সাংবাদিকদের নিরাপত্তার নামে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে বিবৃতিতে। প্রেসক্লাব আঙ্গিনা সিসি ক্যামেরার আওতায় রয়েছে, হামলার ঘটনা ঘটে থাকলে তা সিসি ক্যামেরার ফুুটেজের মাধ্যমে প্রমানসাপেক্ষ। এখনও পর্যন্ত সে ধরনের কোন প্রমান হাজির করা হয়নি।

এদিকে ওমর ফারুকের নেতৃত্বাধীন বিএফইউজে রাজনৈতিক দলের সভা করার অনুমতি না দিতে প্রেস ক্লাব কতৃপক্ষের কাছে লিখিত দাবি জানিয়েছে, যা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও অগণতান্ত্রিক বলে মনে করেন বিএফইউজে ও ডিইউজে নেতৃবৃন্দ। রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনগুলোকে হল ভাড়া দিয়ে অর্জিত অর্থই ক্লাবের আয়ের প্রধান উৎস। একই সঙ্গে প্রেস ক্লাবের হল বরাদ্দের ক্ষেত্রে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের যৌথ স্বাক্ষরের যে দাবি তোলা হয়েছে তাও ক্লাবের অনুসৃত নীতি, প্রথা, গঠনতন্ত্র পরিপন্থী ও উদ্দেশ্যমূলক।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ক্ষমতাসীন সরকার যখন বিরোধী মতের দল ও সংগঠনের সভা-সমাবেশে ক্রমাগতভাবে বাধা দিয়ে চলেছে, তখন সাংবাদিকদের কোন সংগঠন সরকারের সেই রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নের ঘুটি হিসেবে ব্যবহার হতে পারে না। গত দু‘দিনের পুরো ঘটনা পরিক্রমায় এটা স্পষ্ট হচ্ছে যে, বিরোধী মতের কন্ঠ স্তব্ধ করার অসৎ উদ্দেশ্যে গণতন্ত্র চর্চার প্রাণকেন্দ্র প্রেস ক্লাবে বিধি-নিষেধ আরোপের অপচেষ্টা চলছে, যা দু:খজনক ও অনভিপ্রেত। সাংবাদিকরা বাক, ব্যক্তি ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতার পক্ষে অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে ভূমিকা পালন করে আসছে। কোন সাংবাদিক সংগঠন এই গৌরবময় ঐহিত্যের পরিপন্থী তৎপরতার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার হতে পারে না। অতীতে বহুবার জাতীয় প্রেস ক্লাব আক্রান্ত ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। তা সত্ত্বেও কখনও অগণতন্ত্রিক পদক্ষেপ গ্রহণের পথে হাটতে দেখা যায়নি।

নেতৃবৃন্দ সমঝোতা ও পারষ্পরিক হৃদ্যতাপূর্ন সম্পর্কের ভিত্তিতে জাতীয় প্রেস ক্লাব পরিচালনার যে ঐতিহ্য রয়েছে তা অক্ষুন্ন রাখতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন।


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যলয়

আজাদ টাওয়ার ৪৭৬/সি-২, ডিআইটি রোড ৭ম তলা, মালিবাগ রেলগেইট, ঢাকা-১২১৯

মোবাইলঃ ০১৬২২৬৪৯৬১২

মেইলঃ tadantachitra93@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

Web Design & Developed By
A

তদন্ত চিত্র কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েব সাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।