TadantaChitra.Com | logo

৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রাজাপুরে শিক্ষকের বলৎকারের শিকার মাদ্রাসাছাত্র হাসপাতালে

প্রকাশিত : অক্টোবর ২১, ২০২০, ০৮:৫৬

রাজাপুরে শিক্ষকের বলৎকারের শিকার মাদ্রাসাছাত্র হাসপাতালে

নিজেস্ব  প্রতিবেদক : ঝালকাঠির রাজাপুরে শিক্ষকের বলৎকারের শিকার হয়ে মাদ্রাসাছাত্র গুরুতর অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এছাড়া অভিযুক্ত উপজেলার নাড়িকেল বাড়ি কওমী হাফেজী মাদ্রাসার শিক্ষক রহমত উল্লাহ বিষয়টিতে ধামাচাপা দিতে এলাকার মেম্বর ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের ম্যানেজ করে উল্টো নির্যাতনের শিকার ছাত্রের পরিবারেরকে হুমকি-ধামকি দিয়ে যাচ্ছে।

বর্তমানে ওই ছাত্র হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় নির্যাতনের পর সকালে ওই ছাত্র মাদ্রাসা থেকে পালিয়ে যায়। পরে মাদ্রাসা থেকে কিছু দূরে একটি চায়ের দোকানীর কাছে আশ্রয় চাইলে দোকানীর কাছে সব খুলে বলে।

খবর পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক রহমত উল্লাহ ৮নং ওয়ার্ড মেম্বর নূরে আলমসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে নির্যাতিত ও তার পরিবারকে বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করা হুমকি দেয়।

এছাড়া আরো জানা গেছে, শিক্ষক রহমত উল্লাহ নিজেকে বাঁচাতে মেম্বর নূরে আলমসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের টাকা দিয়ে ম্যানেজ করে নিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, শিক্ষক রহমত উল্লাহ বিভিন্ন সময় ওই মাদ্রাসার ছাত্রদের বলৎকারের চেস্টা চালিয়ে আসছিল। তবে লোকলজ্জায় কেউ এতদিন মুখ খুলেনি। এ ব্যাপারে মেম্বর নূরে আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি সম্পূর্ণ অস্বীকার করে।

এছাড়া এমন কোন ঘটনা ঘটেনি বলে জানান। শুকতাঘর নারিকেল বাড়ি এলাকার ওয়ার্ড আ.লীগের সভাপতি কাজল মোল্লা বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। এমন ঘটনা কোনভাবেই কাম্য নয়। অপরাধী যেই হোক তার শাস্তি হওয়া উচিত।

ঝালকাঠি সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোঃ শাখাওয়াত হোসেন জানান, বিষয়টি নিয়ে কেউ এখনো অভিযোগ করেননি। অভিযোগ দিলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া তিনি নির্যাতিত পরিবারকে অভিযোগ দেয়ার জন্য তিনি অনুরোধ জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন...


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যলয়

৪৭৩ ডিআইটি রোড তৃতীয় তলা, মালিবাগ রেইল গেট, ঢাকা-১২১৯

মোবাইলঃ ০১৬২২৬৪৯৬১২

মেইলঃ tadantachitra93@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

তদন্তচিত্র কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।