TadantaChitra.Com | logo

১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

৫ শতাংশের অংশীদারকে ডিপোর মালিক বলা সমীচীন নয়: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : জুন ০৮, ২০২২, ০৯:০৪

৫ শতাংশের অংশীদারকে ডিপোর মালিক বলা সমীচীন নয়: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএম কনটেইনার ডিপোর মাত্র ৫ শতাংশের মালিক আওয়ামী লীগ নেতা মুজিবুর রহমান। তাকে পুরো ডিপোর মালিক বানিয়ে দেওয়াটা বিশাল ভুল। কোনো ভাবেই এটি সমীচীন নয়।’

বুধবার (৮ জুন) দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (এটকো) নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সাংবাদিকদের ব্রিফে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএম ডিপোর ৯৫ শতাংশের মালিক অন্যরা। এরমধ্যে ৬০ শতাংশ নেদারল্যান্ডের। বাকি ৩৫ শতাংশ আরেকজনের। আর আওয়ামী লীগ নেতা মুজিবুর রহমানের মাত্র ৫ শতাংশ। সেই সূত্র ধরে ডিপোর পুরো মালিক মুজিবুর রহমান বলে চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে, এটি বিশাল ভুল।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এক্ষেত্রে প্রথম ভুলটা করেছেন গণমাধ্যমকর্মীরা, যারা ভুলভাবে এ জিনিসটাকে উপস্থাপন করেছেন। সেটির সূত্র ধরে বিএনপি মিথ্যাচার করা শুরু করেছে। সাংবাদিকরা মিসলিডিং তথ্য প্রকাশ করলে অনেক সময় সমাজে ভুল তথ্য যায়। যেসব রাজনৈতিক দল গুজব আর মিথ্যাচারের ওপর ভর করে রাজনীতি করে, তারাও সুযোগ পায়। সুতরাং মাত্র ৫ শতাংশের মালিককে পুরো প্রতিষ্ঠানের মালিক দেখানো কোনোভাবেই সমীচীন হয়নি।’

আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যে গোষ্ঠী পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরুর সময়ে মানুষ বলি দিতে হবে বলে গুজব রটিয়েছিল, যার প্রেক্ষিতে সারাদেশে ছেলেধরা গুজব রটানো হয়। এতে বহু নিরীহ মানুষ হামলার শিকার হয়েছিলেন। অনেকের মৃত্যুও হয়েছে। সেই একই গোষ্ঠী এখনো গুজব রটানোর কাজগুলো করছে।’

পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর খালেদা জিয়া স্থাপন করেছিলেন- মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘মির্জা ফখরুল সাহেব জ্যেষ্ঠ মানুষ, তার সম্পর্কে বেশি কিছু বলতে চাই না। তিনি হঠাৎ স্বপ্ন দেখে পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর নিয়ে মিথ্যাচার করেছেন কি না, তা জানি না। ২০০১ সালের ৪ জুলাই বঙ্গবন্ধুকন্যা পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। তা নিয়ে স্মরণিকাও প্রকাশ পেয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী এবং তৎকালীন যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী আনিছুর রহমানও বাণী দিয়েছিলেন। সেটির ছবিও আমার কাছে আছে। অথচ ফখরুল সাহেব কাল্পনিক কথা বলে বসলেন।’

এসময় অন্যদের মধ্যে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মকবুল হোসেন, এটকোর সিনিয়র সহ-সভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী, পরিচালক আব্দুল হক, কাজী জাহেদুল হাসান, লিয়াকত আলী খান মুকুল, আহমেদ জুবায়ের, নাভিদুল হক, মো. আশফাক উদ্দীন আহমেদ, আব্দুস সামাদ লাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যলয়

আজাদ টাওয়ার ৪৭৬/সি-২, ডিআইটি রোড ৭ম তলা, মালিবাগ রেলগেইট, ঢাকা-১২১৯

মোবাইলঃ ০১৬২২৬৪৯৬১২

মেইলঃ tadantachitra93@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

Web Design & Developed By
A

তদন্ত চিত্র কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েব সাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।